রূপচর্চায় থাকুক শসা ও লেবুর আধিপত্য

 

রূপচর্চায় জন্য আমরা অনেক রকম সবজি ও ফলমূল ব্যবহার করি এর মধ্য থেকে সবথেকে বেশি ব্যবহার ও কার্যকরী হলো লেবু ও শসা।

আমাদের কাছে লেবু একটি বহুল ব্যবহৃত খাবার একই সাথে রুপচর্চার অনেক বড় সহায়ক। শুধু যে খাবার হিসেবে তা নয়, লেবুর ব্যবহার রয়েছে রূপচর্চার ক্ষেত্রেও। শরীরের কালো দাগ দূর থেকে শুরু করে ব্রণ কমানো সবক্ষেত্রেই লেবুর ব্যবহার হয়ে থাকে।

 

রূপচর্চায় লেবুর কয়েকটি ব্যবহার-


১. লেবুতে থাকা অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট ত্বকের ভাঁজ ও দাগ দূর করে। এছাড়া এতে থাকা ভিটামিন-সি ব্রণ বা অ্যাকনে সৃষ্টিকারী ব্যাকটেরিয়া দূর করতে সহায়তা করে।

২. রোদে পোড়া ত্বক ঠিক করতে লেবু কার্যকরী ভূমিকা পালন করে। এর অ্যান্টি-ব্যাকটেরিয়াল এবং অ্যান্টি-ভাইরাল উপাদান দেহে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়।

৩. ত্বকের তৈলাক্ত ভাব দূর করতে লেবুর রস উপকারি। সমপরিমাণ শসার রস ও লেবুর রস মিশিয়ে একটি মিশ্রণ তৈরি করে তুলার সাহায্যে মুখে লাগান। তৈলাক্তভাব দূর হবে।

৪. লেবু হাতের কনুই, হাঁটু, পায়ের গোড়ালির ময়লা দূর করতে কার্যকরী। হাত ও পায়ের রুক্ষভাব দূর করতে লেবুর রসের সঙ্গে চালের গুড়ো মিশিয়ে হাত পায়ে লাগালে রুক্ষভাব দূর হবে।


৫. বয়সজনিত মুখের দাগ সারাতে লেবুর রস দ্রুত কাজ করে। এছাড়া, লেবুর রস ব্যবহারে মুখের ব্রণও দ্রুত কমে।


রূপচর্চায় শসার ব্যবহার নিয়ে নতুন করে কিছু বলার নেই। সতেজ ত্বকের জন্য যে শসা একটি অপরিহার্য নাম তা সবারই কম-বেশি জানা। তবে রূপচর্চার জন্য শসার সঠিক ব্যবহারের পদ্ধতি হয়তো অনেকের জানা নেই।


রূপচর্চায় শসার কয়েকটি ব্যবহার-

 

১. মুখে কোনো কালো দাগ পড়লে কচি শসার রস মুখে লাগিয়ে ১৫ মিনিট রেখে ঠান্ডা পানিতে ধুয়ে নেবেন। এভাবে কিছুদিন নিয়মিত লাগালে দাগ উঠে যায়।

২. শসার রসের সাথে কয়েক ফোঁটা লেবুর রস মুখে মেখে শুকিয়ে গেলে ঠান্ডা পানিতে ধুয়ে নিলে মুখের রং উজ্জ্বল ও কোমল হয়। তবে নিয়মিত কিছুদিন করতে হবে।

৩. অনেক সময় দেখা যায় চোখের নিচে অনেকেরই কালো দাগ পড়ে। শসার রস নিয়মিত মাখলে এ দাগ দূর হবে।

৪. যদি কেউ ফর্সা হতে চান তবে নিয়মিত শসার রসের সাথে কয়েক ফোঁটা লেবুর রস মিশিয়ে মুখে, হাতে ও গায়ে নিয়মিত মাখলে গায়ের রং ফর্সা হয় অথবা শসা পাতলা পাতলা করে কেটে মুখে ঘসে নিতে পারেন। পরে শুকোলে ঠান্ডা পানিতে ধুয়ে নেবেন।

৫. মুখকে রোদ থেকে বাঁচাতে, মুখের দাগ তুলতে ও ময়লা থেকে যদি রেহাই পেতে চান তবে শসার সাহায্যে একটি ফেসপ্যাক বানিয়ে ২৫/৩০ মিনিট রেখে প্রথমে গরম পানি, পরে ঠান্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে নিয়ে আপনি নিশ্চিন্তে বাইরে বেড়িয়ে আসতে পারেন। এতে ত্বক সারাদিনের জন্যে যেমন চকচকে, মসৃণ ও কোমল থাকবে।

Contributer : Redwana Antu

Brac University

আরও গল্প

একটা মুভি দেখা কি এতই ...

এই কি জীবনের সব?

কেন আমি কখনো বৃষ্টিতে ভিজতে ...

আরও গল্প

অ্যাজমার চিকিৎসা

হেলথকেয়ার ব্লগ
2 days ago

10 ways to keep your mind sharp!

হেলথকেয়ার ব্লগ
6 days ago

কোমর ব্যথায় করণীয়

হেলথকেয়ার ব্লগ
1 week ago

হঠাৎ হাঁচি আসলে কি করণীয়?

হেলথকেয়ার ব্লগ
1 week ago